,



দৈনিক ডেসটিনি পত্রিকায় খবর প্রকাশ হওয়ায় প্রশিক্ষিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের অনুমতি প্রদান!

আব্দুর রহমান রাসেল,রংপুর,ডেসটিনি অনলাইন:

বৈদ্যুতিক ঘর ওয়্যারিং একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ এ কাজে একটু হেরফের এলেই বৈদ্যুতিক দূর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা শতভাগ ইতোমধ্যে,এমনই ঘটনা ঘটেছে অনেকবার । অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা ঘর ওয়ারিং করার কারণে প্রতিনিয়তই ঘটেছে প্রাণহানির ঘটনা ।

অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা ওয়্যারিংয়ের কাজরে মান খারাপ হওয়ার ঘটনা বিভিন্ন স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক ডেসটিনি পত্রিকায় খবর প্রকাশ হওয়ায় সারাদেশে ৭৮ টি পবিসের মধ্যে ৬০ টি পবিসের সিনিয়ার/জেনারেল ম্যানেজার গণ প্রশিক্ষিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের ওয়্যারিংয়ের কাজ করার অনুমোতি দিয়েছেন এবং অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা ওয়্যারিংয়ের কাজ করা বন্ধ ঘোষণা করেন । অথচ,দক্ষ ও প্রশিক্ষিত নিবন্ধনধারী ইলেকট্রিশিয়ানদের কোনঠাসা করে রাখা হয়েছিল । অনুমোদিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের অভিযোগ-সারাদেশে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি আছে ৭৮ টি এর মধ্যে ৬০ টি পবিস উচ্চ আদালতের রায় মেনে নিয়েছে। কিন্তু, এখনো রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ১ সহ ১৮ টি পবিস মহামান্য হাইকোটের রায় তাদের পক্ষে রায় প্রদান ও বি, আর, ইবি’র দপ্তারাদেশ দেওয়ার পরেও বাস্তবায়ন করেননি সিনিয়ার/জেনারেল ম্যানেজার। এদিকে পবিসের সিনিয়ার/জেনারেল ম্যানেজারা সিটিজেন চার্টার প্রতিটি সদর দপ্তরসহ জোনাল অফিসে ঝুলিয়ে দিয়েছে । এতে লেখা আছে অনুমোদিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের বৈদ্যুতিক ঘর ওয়্যারিং এর কাজ করে রিপোর্ট জমা দিতে হবে । বাস্তবতায় তা নয় সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি- ১ এ এখনও উন্মক্ত পদ্ধিতিতে ওয়্যারিংয়ের কাজ করাচ্ছে অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা এ কারণে ইতোমধ্যে কয়েকটি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে । অনুমোদিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান মোখছেদুল হক অভিযোগ করেন-আমরা বারবার বলে আসছি,প্রশিক্ষিত ইলেকট্রিশিয়ান তৈরী করা হোক। কিন্তুু, জেনারেল ম্যানেজার কোন কর্ণপাত করছেন না । তিনি উচ্চ আদালতের রায়কেও মানছেন না । রংপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বড় বড় অগ্নিকান্ডের ঘটনাগুলো ঘচেছে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে । মূলত.ওয়্যারিংয়ের ক্রটির জন্য এগুলো বেশি ঘটেছে । রংপুর পবিস ১ এর পাওয়ার ইউজ কো-অডিনেটর মো: ওযারেছ আলী অবৈধ ভাবে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেওয়ার লোভে অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা ওয়্যারিংয়ের কাজ করাচ্ছে। এরফলে আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে বিগত ২৭ মাস ধরে মানবেতার জীবন-যাপন করছি।- বলছিলেন বাংলাদেশ ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন । রুহুল আমিনের মত সারাদেশে এই ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার । অনুমোদিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান আইয়ুব আলী অভিযোগ করে বলেন,বাংলাদেশ পল­ী বিদ্যুতায়ন বোর্ড আমাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে । আমরা দক্ষতার সাথে সুষ্ঠভাবে কাজ সম্পন্ন করেছি । কিন্তু হঠাৎ করেই অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ানের দ্বারা ওয়ারিং কাজ করানো হচ্ছে । আমাদের ন্যায্য অধিকার দেওয়া হচ্ছে না । খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১ ও২ আগষ্ট বাংলাদেশ পল­ী বিদ্যুতায়ন বোর্ডর জেনারেল ম্যানেজার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় । সম্মেলনে ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের হয়রানীমুলক কার্যক্রমের অভিযোগ তুলেন জেনারেল ম্যানেজারেরা । অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অনুমোদিত ও প্রশিক্ষিত নিবন্ধনধারী ইলেকট্রিশিয়ানদের ক্ষমতা খর্ব করা হয়েছিল । এরফলে, অদক্ষ ইলেকট্রিশিয়ানরা কাজে লেগে পড়েন । বেড়ে যায় হয়রানি ও কমে যায় কাজের গুনগত মান । ওই বছরে আনিছুর রহমান নামে একজন ইলেকট্রিশিয়ান উচ্চ আদালতে রীট পিটিশন করেন । দির্ঘদিন আইনি লড়াই শেষে ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানরা ক্ষমতা ফিরে পান । বাংলাদেশ পল­ী বিদ্যুতায়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে,বোর্ডের সদর দপ্তরে অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ানদের ওয়ারিং উন্মক্ত করা হয় । কিন্তু,পরবর্তিতে উচ্চ আলাদতে রীট পিটিশনে পূনরায় অনুমোদিত ও প্রশিক্ষিত ইলেকট্রিশিয়ানদের ক্ষমতা ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে ।
রংপুর পবিস ১ এর সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (সদস্য সেবা)প্রকৌশলী মতিউর রহমান বলেন, অনুমোদিত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান ওয়্যারিংয়ের কাজ করে ১৫০ জন, বর্তমান উন্মক্ত হওয়ার ফলে সু-নির্দিষ্ট পরিসংখ্যান হাতে নেই । তবে,কাজের গুনগত মান আগের চেয়ে অনেক খারাপ হচ্ছে। রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার নুরুর রহমান বলেন, উচ্চ আদালতের রায় আমি অমান্য করছিনা । দ্রুতগতিতে কাজ করার স্বার্থে অনুমোদিত ইলেকট্রিশিয়ান ছাড়াও সবার জন্য উন্মক্ত করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ