বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮ | ১, কার্তিক, ১৪২৫
 / জাতীয় / দ্বিতীয় দিনে কমলাপুর রেলস্টেশনে উপচে পড়া ভিড়
নিজস্ব প্রতিবেদক, ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Thursday, 9 August, 2018 at 12:48 PM, Update: 09.08.2018 1:15:40 PM, Count : 198
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল আজহা উপলক্ষ্যে ট্রেনের আগাম টিকেট বিক্রির দ্বিতীয় দিনে আজ বৃহস্পতিবার (০৯ আগস্ট) দেয়া হচ্ছে ১৮ আগস্ট শনিবারের টিকেট। আজ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় ট্রেনের আগাম টিকেট বিক্রি। কাঙ্খিত টিকেট পেতে গতকাল বুধবার রাত থেকেই কমলাপুর রেলস্টেশনে ভিড় করে প্রচুর মানুষ।
প্রতিটি কাউন্টারের সামনে থেকে টিকিট প্রত্যাশীদের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। দীর্ঘ অপেক্ষার পর কাঙ্খিত টিকেট হাতে পেয়ে খুশি যাত্রীরা।


রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, গতকাল দেওয়া হয়েছে ১৭ আগস্টের টিকেট। আজ বৃহস্পতিবার দেওয়া হচ্ছে ১৮ আগস্টের টিকেট। এভাবে ১০ আগস্ট ১৯ আগস্টের, ১১ আগস্ট ২০ আগস্টের ও ১২ আগস্ট ২১ আগস্টের অগ্রিম টিকিট দেয়া হবে। আর ফিরতি টিকিট দেয়া হবে ১৫ আগস্ট ২৪ আগস্টের, ১৬ আগস্ট ২৫ আগস্টের, ১৭ আগস্ট ২৬ আগস্টের, ১৮ আগস্ট ২৭ আগস্টের ও ১৯ আগস্ট ২৮ আগস্টের। প্রতিদিন প্রায় ২৪ হাজার টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে। একজন যাত্রীকে একসঙ্গে সর্বোচ্চ ৪টি টিকিট দেয়া হবে।

কাউন্টারের সামনে গিয়ে দেখা গেছে, আজ ভোর থেকেই অনেকে এসে লাইনে দাঁড়ান। প্রতিটি কাউন্টারের সামনে থেকে টিকিটপ্রত্যাশীদের দীর্ঘলাইন। প্রতিটি লাইনই প্রায় গিয়ে ঠেকেছে স্টেশনের বাইরে।


কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার সীতাংশু চক্রবর্তী জানান, বিগত বছরগুলোর মতো এবারও ১০ দিন আগে থেকে শুরু হয়েছে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি। ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে যেন কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ রেলওয়ের নিজস্ব বাহিনী তৎপর রয়েছে।

তিনি আরও জানান, যাত্রীদের সুবিধার্থে কমলাপুর স্টেশনে ২৬টি কাউন্টার খোলা রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ২টি কাউন্টার মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত আছে। যাত্রীরা সকাল ৮টা থেকে ২৬টি কাউন্টারে আগামী ১৮ আগস্টের টিকিট সংগ্রহ শুরু করেছেন। সকলেই সুশৃঙ্খলভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করছেন, তবে সকাল থেকেই টিকিট প্রত্যাশী মানুষের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।


সীতাংশু চক্রবর্তী বলেন, সুষ্ঠ ও নিরাপদে ট্রেন চলাচলের সুবিধার্থে ট্রেন পরিচালনার সাথে সম্পৃক্ত রেলওয়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সকল প্রকার ছুটি বাতিল করা হবে। ২১, ২২ আগস্ট মৈত্রী এক্সপ্রেস এবং ২৩ আগস্ট বন্ধন এক্সপ্রেস চলাচল করবে না।



প্রতিবারের মত এবারও মোট টিকিটের ৬৫ শতাংশ দেয়া হচ্ছে কাউন্টার থেকে। বাকি ৩৫ শতাংশের ৩০ শতাংশ অনলাইন ও মোবাইলে। এছাড়া ভিআইপি ও রেল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে ৫ শতাংশ।

কালোবাজারে টিকিট বিক্রি রোধে তৎপর রয়েছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এবার প্রতিদিন কমলাপুর থেকে সারাদেশের উদ্দেশে মোট ৬৬টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। এর মধ্যে ৩২টি আন্তঃনগর, বাকিগুলো মেইল ও স্পেশাল সার্ভিস।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162