বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৮ | ২, কার্তিক, ১৪২৫
 / প্রথম পাতা / তারেকের ফাঁসি না হওয়ার অসন্তুষ্ট আওয়ামী লীগে
ডেসটিনি রিপোর্ট
Published : Thursday, 11 October, 2018 at 9:37 PM, Count : 118
তারেকের ফাঁসি না হওয়ার অসন্তুষ্ট আওয়ামী লীগে

তারেকের ফাঁসি না হওয়ার অসন্তুষ্ট আওয়ামী লীগে

ভয়াল ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে স্বস্তি প্রকাশ করলেও তারেক রহমানের ফাঁসি না হওয়ায় আপেক্ষ রয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগে। দলটির নেতারা বলেছেন, দীর্ঘ প্রতিক্ষার পরে এই রায়ে তারা অখুশি নন। তবে এতে তারা পুরোপুরি সন্তুষ্টও নন। রায়ে তারেক রহমানেরও সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- হওয়া উচিত ছিল। তারেক রহমানকে এই হামলার প্ল্যানার বা মাস্টারমাইন্ড আখ্যায়িত করে আপিলে তার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিও জানিয়েছেন তারা। গতকাল বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিলম্বিত এ রায়ে আমরা অখুশি নই। তবে পুরোপুরি সন্তুষ্টও নই। এই হামলার যে প্ল্যানার বা মাস্টারমাইন্ড, তার শাস্তি হওয়া উচিত ছিল সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ-।
এদিকে এই রায়কে কেন্দ্র করে গতকাল বুধবার সকালে থেকেই রাজধানীর পাড়া-মহল্লায় সতর্ক অবস্থানে ছিল আওয়ামী লীগ এবং তার অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সকাল থেকে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। দক্ষিণের সভাপতি আবুল হাসানাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আশরাফ তালুককাসহ বিভিন্ন স্থরের নেতাকর্মীরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পরে শাহে আলম মুরাদ বলেন, জাতির বহুল প্রত্যাশিত রায়ে মানুষ খুশি হয়েছে। আমরাও অখুশি তা বলছি না। তবে ঘটনার মুল নায়ক বাইরে থাকায় কষ্ট পেয়েছি। প্রত্যাশা ছিল তারেক রহমানের ফাঁসি হবে।
১০ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মতবিনিময়কালে সাবেক মুুক্তিযুদ্ধবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষিত রায়ের মাধ্যমে প্রমাণ হয়েছে আইন তার নিজস্ব গতিতে চলে। এই রায়ের ফলে আর কেউ এমন ঘটনা ঘটনার সাহস পাবে না। বাংলাদেশের ইতিহাসে নজির হয়ে থাকবে। তবে মাস্টার মাইন্ড তারেক রহমানের ফাঁসি না হওয়ায় আমরা মুক্তিযোদ্ধারা পুরোপুরি খুশি হতে পারিনি। সরকারের কাছে আবেদন জানাবো, আপিল করে মুলহোতা তারেক রহমানের ফাঁসি নিশ্চিত করা হোক। কারণ ঘটনার মূলে ছিল তারেক রহমান।
রাজধানীর গুলিস্তান এরশাদ মার্কেটের সামনে ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু নেতৃত্বে অবস্থান নেয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। রাজধানীর প্রবেশপথ যাত্রাবাড়ী ও ডেমরার স্টাফ কোয়াটারের সামনে সর্তক অবস্থায় ছিল ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মোল্লা সজল। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কৌশিক আহমেদ জসিম ও সাধারণ সম্পাদক রায়হান জামিল রিপন, মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক সোহেল খান ও সারুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মো. ফারুকসহ আরো অনেক। এছাড়া ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়সহ রাজধানীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এবং পাড়া মহল্লায় সতর্ক অবস্থানে ছিল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। রায়ের পর তাৎক্ষণিক মিছিল করে মুক্তিযোদ্ধারা। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক মহাসচিব সফিকুল বাহার মজুমদার টিপুর নেতৃত্বে মিছিলে সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন পাহাড়ি বীরপ্রতীক, কেন্দ্রীয় নেতা মাহমুদ পারভেজ জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধু এভিনিউসহ রাজধানীর বিভিন্ন থানা, ওয়ার্ড ইউনিয়নে রায় ঘোষণার পরে আনন্দ মিছিল করা হয়। এসব মিছিলে ‘যাবাজ্জীবন বিধান নাই, তারেক জিয়ার ফাঁসি চাই... এই মাত্র খবর এলো বাবরের ফাঁসি হলো... ফাঁসি চাই তারেক জিয়ার ফাঁসি চাই’সহ... বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দিতে দেখা যায়।
রায়ে সন্তুষ্ট নয় আহতরা ও নিহতদের স্বজনরা : দীর্ঘ ১৪ বছর অপেক্ষার পর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে অসন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন ওই ঘটনায় আহতরা ও নিহতদের স্বজনরা। রায়ের পরে গতকাল বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে কথা হয় তাদের বেশ কয়েকজনের সাথে। সেদিনের ঘটনায় আহত বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খুরশিদা বেবী হেনা বলেন, আমার সারা শরীরে স্পিন্টার। এখনো আমি রাতে ঠিক মতো ঘুমাতে পারি না। তাই এই রায়ে আমরা খুশি নই। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মূল নায়ক তারেক রহমানকে তো ফাঁসি দেয়া হয়নি। তারেক রহমান একটা কালপিট। তাকে ফাঁসি দিলে বেশি খুশি হতাম। তবে আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আশা করছি, উচ্চ আদালত তাকে ফাঁসি দেবেন। আওয়ামী লীগের কর্মী হেনা বেগমও সেদিন আহত হয়েছিলেন। তিনি বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আমি আহত হয়েছি। আমরা এই রায় মানি না। আওয়ামী লীগের আরেক কর্মী আয়েশা খানম। তার মামি সেদিন নিহত হয়েছিলেন। তিনি বলেন, আমার মামী ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহীদ হয়েছেন। কিন্তু এই হামলার যে মুল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমানের ফাঁসি হয়নি। এটা আমরা মানতে পারি না। আমরা চাই, উচ্চ আদালত তারেক রহমানকে সর্বোচ্চ শাস্তি দেবেন। এছাড়াও ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে এসেছিলেন সেদিনের আহত সেতারা বেগম পুতুল, আওয়ামী লীগের কর্মী সেলিম পাটোয়ারি, তাসলিমা, আফরোজা, মুক্তিযোদ্ধা নিজাম, শেফালী, হারিস হাসানসহ অনেকে। এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে তারাও জানালেন তাদের দুর্বিসহ জীবনের কথা। একই সাথে এই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবিও জানান তারা।



দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162