সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮ | ৫, অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
 / জেলার খবর / সিনেমাকেও হার মানায় : নবম শ্রেণির ছাত্র্রীকে নিয়ে উধাও অষ্টম শ্রেণির ছাত্র!
চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি, ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Wednesday, 7 November, 2018 at 8:34 PM, Update: 07.11.2018 8:39:44 PM, Count : 283
সিনেমাকেও হার মানায় : নবম শ্রেণির ছাত্র্রীকে নিয়ে উধাও অষ্টম শ্রেণির ছাত্র!

সিনেমাকেও হার মানায় : নবম শ্রেণির ছাত্র্রীকে নিয়ে উধাও অষ্টম শ্রেণির ছাত্র!

মোঃ আলমগীরের গত বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) শুরু হওয়া পানছড়ি ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা কেন্দ্রে জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য উপস্থিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু সে বোর্ড ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ না নেয়ায় বিষয়টি অস্বাভাবিক মনে হয় সবার কাছে। পরীক্ষায় অংশ না নেয়ার কারণ জানতে গিয়ে বেরিয়ে আসে গোপনে থাকা মূল রহস্য।

জানা যায়, আলমগীর জেলার পানছড়ি উপজেলার ৩ নম্বর সদর পানছড়ি ইউপির আইয়ুব নগর গ্রামের মোঃ বাচ্চু মিয়ার ছেলে। আলমগীর পানছড়ি ইসরামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির একজন ছাত্র। সে জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিবেন বলে ফরম ফিলাপও করেছিল। কিন্তু অষ্টম শ্রেণির এই ছাত্র নবম শ্রেণির ছাত্রী শান্তার প্রেমে অন্ধ ছিল। শান্তা দমদম গ্রামের মোঃ মোছাদের মেয়ে।

শান্তা ও আলমগীর দু’জনে অজানা উদ্দেশে পাড়ি জমায়।

দু’জনে চট্টগ্রাম কোর্টে গিয়ে ২১ সেপ্টেম্বর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সম্প্রতি এলাকায় আসেন। এসব তথ্য নিজেই জানান অষ্টম শ্রেণির ছাত্র আলমগীর। তার কাছে তাদের বর্তমান বয়সের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, শান্তার (১৮) ও আমার বয়স ১৯ বছর।

তাদের দু’জনের মাদ্রাসায় ভর্তির রেজিঃ মোতাবেক আলমগীরের বয়স ১ জানুয়ারি ২০০৩ ও শান্তার বয়স ৩ জুলাই ২০০১। হিসেব অনুযায়ী শান্তার থেকে দু’বছরের ছোট আলমগীর। কোন বয়সটা সঠিক এমন প্রশ্নের উত্তরে সরাসরি জানান, জন্ম নিবন্ধন দু’নম্বরী করে বিয়ের কাজ শেষ করা হয়েছে। অষ্টম শ্রেণির ছাত্রের সঙ্গে নবম শ্রেণির ছাত্রীর বিয়ের বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে উপজেলায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

আলমগীরের বাবা বাচ্চু মিয়া এ বিষয়ে জানান, আমার সব মান-সম্মান গেছে। কেবল মাত্র মানবিক কারণে ছেলে ও মেয়েকে ঘরে তুলতে বাধ্য হয়েছি।

এ নিয়ে পানছড়ি মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনিকা বড়ুয়া জানান, খুবই দুঃখজনক ঘটনা এটি। তারা যেহেতু পানছড়ি উপজেলার বাইরে গিয়ে কাজটি করেছে তাই আমাদের কিছুই করার ছিল না। উভয়পক্ষের অভিবাবককে ডেকে ওই দু’জনের পড়ালেখা চালিয়ে যেতে ও বিয়ের বয়স পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত নিজ নিজ বাবা-মা’র হেফাজতে থাকার জন্য পরামর্শ দিয়ে মুচলেকা নেয়া হবে। এ বিষয়ে আন্তরিকভাবে কাজ করবেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও তাদের নিয়মিত খোঁজ-খবর নেয়া হবে বলেও নিশ্চয়তা করেন।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162