এই মাত্র পাওয়া : দেশে সকল পর্নো সাইট ব্লক করার নির্দেশ
সোমবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৮ | ৫, অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
 / শেষ পাতা / এক মাসে চালের দাম কমেছে কেজিতে ৭ টাকা
হিলি প্রতিনিধি
Published : Friday, 9 November, 2018 at 9:31 PM, Count : 25
এক মাসে চালের দাম কমেছে কেজিতে ৭ টাকা

এক মাসে চালের দাম কমেছে কেজিতে ৭ টাকা

এবারের আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় দেশে ধানের ফলন বেড়েছে। কৃষিপণ্যটির দামও রয়েছে কম। মিলগেটে ধান-চালের দাম তুলনামূলক কম থাকায় পাইকারি বাজারে চালের দাম কমতে শুরু করেছে। দেশে ধান-চালের পর্যাপ্ত উৎপাদন হওয়ায় সর্বশেষ জাতীয় বাজেটে চাল আমদানিতে বিদ্যমান শুল্কহার বাড়িয়েছে সরকার। এর জের ধরে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে খাদ্যপণ্যটির আমদানি প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতিতেও স্থানীয় বাজারে কমতির দিকে রয়েছে চালের দাম। হিলির পাইকারি বাজারে এক মাসের ব্যবধানে চালের দাম কেজিতে সর্বোচ্চ ৭ টাকা কমেছে। খাদ্যপণ্যটির দাম কমার পেছনে বাড়তি সরবরাহকে চিহ্নিত করেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।
হিলির পাইকারি আড়তগুলোয় গতকাল প্রতি কেজি স্বর্ণা জাতের চাল ৩২ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। এক মাস আগে এ জাতের চাল ৩৮ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে এ চালের দাম কেজিতে ৬ টাকা কমেছে। এদিন রতœা জাতের প্রতি কেজি চাল বিক্রি হয় সর্বোচ্চ ৩০ টাকা কেজিতে। এক মাসের ব্যবধানে খাদ্যপণ্যটির দাম কেজিতে ৭ টাকা কমেছে। একই পরিমাণ কমেছে আঠাশ জাতের চালের দামও। এক মাস আগে আঠাশ জাতের চাল কেজিপ্রতি ৪২ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। গতকাল খাদ্যপণ্যটির দাম কেজিপ্রতি ৭ টাকা কমে দাঁড়ায় ৩৫ টাকায়।
চাল বিক্রেতা অনুপ বসাক জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবারের মৌসুমে দেশে ধানের উৎপাদন বেড়েছে। কৃষিপণ্যটির দামও কম রয়েছে। এ কারণে মিলাররা চালের দাম কমিয়েছেন। দেশে উৎপাদিত চালের সরবরাহ পর্যাপ্ত ও দাম কম থাকায় পণ্যটির আমদানি চাহিদা কমে গেছে। এ কারণে আমদানি করা চালের দামও কম রয়েছে।
হিলি স্থলবন্দরের চাল আমদানিকারক মামুনুর রশীদ লেবু জানান, প্রতিকূল আবহাওয়ার জের ধরে গত মৌসুমে দেশে ধান-চাল উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় খাদ্যপণ্যটির আমদানি শুল্ক ৩ শতাংশে নামিয়ে এনেছিল সরকার। সেই সময় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে প্রতিদিন গড়ে ৫০-৬০ ট্রাক চাল আমদানি হয়েছে। তবে এবারের মৌসুমে পরিস্থিতি বদলে গেছে। অভ্যন্তরীণ উৎপাদন পর্যাপ্ত হওয়ার কারণে চলতি জাতীয় বাজেটে চাল আমদানিতে শুল্কহার বাড়িয়ে ২৮ শতাংশ করা হয়েছে। এতে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে খাদ্যপণ্য আমদানি প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে।বর্তমানে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে চাল আমদানি একেবারে শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে। মাঝে মধ্যে দুই-এক ট্রাক নাজিরশাইল জাতের চাল আমদানি হলেও স্বর্ণা ও রতœা জাতের মোটা চাল আমদানি হচ্ছে না। এরপরও পাইকারি বাজারে চালের দাম কম রয়েছে মূলত অভ্যন্তরীণ সরবরাহ বেশি থাকা ও সরকারি গুদামে পর্যাপ্ত মজুদের কারণে। এতে হিলির চাল আমদানিকারকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।
হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন জানান, আমদানিতে ৩ শতাংশ শুল্ক থাকার সময় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে প্রতিদিন ৫০-৬০ ট্রাক চাল আমদানি হয়েছিল। বর্তমানে ২৮ শতাংশ শুল্কের আওতায় এর পরিমাণ এক-দুই ট্রাকে নেমে এসেছে। কোনো কোনো দিন চাল আমদানি বন্ধ থাকছে। মূলত বাড়তি আমদানি শুল্ক ও দেশের বাজারে সরবরাহ বেশি থাকায় চাল আমদানি কমে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162