আজ সোমবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৯ মে ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
কেরানীগঞ্জে ডেসটিনির জমিতে নতুন সাইনবোর্ড স্থাপন
কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি
Published : Friday, 23 December, 2016 at 10:15 PM, Update: 22.12.2016 10:22:20 PM, Count : 6323


কেরানীগঞ্জে ডেসটিনির জমিতে নতুন সাইনবোর্ড স্থাপনডেসটিনি গ্রুপের বিরুদ্ধে ২০১২ সালে দুদকের করা মানিলন্ডারিং মামলায় শীর্ষ কর্মকর্তাগণ আত্মসমর্পণের পর ডেসটিনি গ্রুপের নামে ক্রয়কৃত হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি বেদখল হয়ে যায়। পরে আদালতের নির্দেশে এসব সম্পত্তি দেখাশোনার দায়িত্ব ডিএমপি পুলিশ কর্মকর্তার অধীনে থাকলেও অনেক সম্পত্তি  বেদখল অবস্থায় থেকে যায়, যা স্থানীয় প্রভাবশালীগণ ভোগদখল করে আসছিলেন। এসব সম্পত্তির মধ্যে  ঢাকার অদূরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে ১৬৫ বিঘা জমি পূর্বের মালিক সাবেক আমিন চেয়ারম্যান ও তার ভাই রহমান ডেসটিনির লাগানো সাইনবোর্ড নামিয়ে নিজেদের মতো করে ভোগদখল করছিলেন। এ বিষয়ে বৈশাখী টেলিভিশন ও দৈনিক ডেসটিনি পত্রিকায় কয়েকবার প্রতিবেদন প্রকাশ করা হলেও প্রশাসনের পক্ষ হতে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। গত ১০ নভেম্বর ১৬ দৈনিক ডেসটিনি ও ডেসটিনি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে ‘কেরানিগঞ্জে ডেসটিনির জমি অরক্ষিত’ নামে আবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এতে  ডেসটিনির বর্তমানে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা প্রশাসনের সহযোগিতায় এই সম্পত্তি ডেসটিনির দখলে নিতে সক্ষম হন।
গত বুধবার কেরানীগঞ্জ জোনের ডেসটিনি গ্রুপের সম্পদরক্ষাকারী কমিটির আহ্বায়ক মো. জনি মিয়া, সদস্য সচিব মো. সুলতান, ডেসটিনির বিনিয়োগকারী মো. আরিফ, মোঃ নবী হোসেন, মো. ফারুক মিয়াসহ আরো কয়েকজনের সহযোগিতায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার হাজীবাজার এলাকায় ১৬৫ বিঘা জমির মধ্যে ৩৩ বিঘা জমিতে দুটি সাইনবোর্ড লাগানো হয়।
বুধবার ডেসটিনি গ্রুপের একটি প্রতিনিধিদল কেরানীগঞ্জে জমি পরিদর্শনে যান। এই দলে ছিলেন ডেসটিনি গ্রুপের ঢাকা বিভাগের সম্পদরক্ষাকারী কমিটির সমন্বয়কারী, ডেসটিনি সোস্যাল মিডিয়া ফোরাম-ব্লুর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রধান নির্বাহী পিএসডি মো. আব্দুর রহিম, ডিএসএমএফ-ব্লুর কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ঢাকা বিভাগীয় সমন্বয়কারী পিএসডি এ টি এম খুরশীদ আলম, ডিএসএমএফ-ব্লুর কেন্দ্রীয় নির্বাহী  কমিটির রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়কারী ও দৈনিক ডেসটিনির প্রতিনিধি রেজাউল ইসলাম।
পরিদর্শন শেষে মো. আব্দুর রহিম দৈনিক ডেসটিনিকে জানান, প্রশাসনের সহযোগিতায় আমরা এখানে নতুন করে সাইনবোর্ড লাগাতে পেরেছি এবং এই জমিতে পূর্বের  মালিক আলু চাষ করেছেন তার সাথে কথা বলেছি, তিনি আমাদের কাছে জমি হস্তান্তরের আশ্বাস দিয়েছেন।
সম্পদরক্ষাকারী কমিটির আহ্বায়ক মো. জনি মিয়া জানান, এই সম্পত্তি ডেসটিনির অধীনে আসলে প্রতি বছর লিজ দিয়ে প্রচুর আয় করা সম্ভব, যা ডেসটিনি গ্রুপের জন্য সহায়ক হবে।
এ বিষয়ে স্থানীয় বিনিয়োগকারীরা এই সম্পত্তি ডেসটিনির দখলে আসায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন জানিয়ে তারা আরো বলেন, ডেসটিনির বিরুদ্ধে আমাদের কোনো অভিযোগ নেই। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি, ডেসটিনির দুই শীর্ষ কর্মকর্তা এমডি মোহাম্মদ রফিকুল আমীন ও চেয়ারম্যান আলহাজ মোহাম্মদ হোসাইনকে মুক্তি দিয়ে সকল জব্দকৃত সম্পত্তি উদ্ধার করে পুনরায় ডেসটিনিতে কাজ করার সুযোগ দিন।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন। ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
সম্পাদক কর্তৃক ১৪৬ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা (৪র্থ তলা), ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত ও ডেসটিনি প্রিন্টিং প্রেস, ১৩/২/এ কেএম দাস লেন, গোপীবাগ, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
যোগাযোগ : আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর, ঢাকা-১০০০।
ফোন : ৭১৭৪৭০২, ৯৫৫৯৯৪৯, ৯৫৫৯০০৬, বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০, email: ddaddtoday@gmail.com ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com, e-mail:destinyout@yahoo.com, dainikdestiny@gmail.com
Developed & Maintenance by i2soft