আজ সোমবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৯ মে ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
সাদুল্লাপুরে ১২ ঘণ্টায় দুই দলের চার নেতাকে  অপহরণ
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 10:08 PM, Count : 38
গাইবান্ধ প্রতিনিধি
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও যুবদলের চার নেতাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দফতরসহ নানা জায়গায় বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালিয়েও তাদের কোনো সন্ধান পাচ্ছে না পরিবারের লোকজন। তবে তাদেরকে তুলে নেয়া বা আটকের ব্যাপারে পুলিশ, র‌্যাব বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে কোনো তথ্য নেই বলে জানানো হয়েছে। নিখোঁজ চার নেতা হলেন সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মনোয়ারুল হাসান জীম ম-ল, নলডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাইদুল ইসলাম প্রিন্স, দামোদরপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সাদেক ও নলডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক শফিউল ইসলাম শাপলা। এদিকে সুন্দরগঞ্জের সংসদ সদস্য লিটন খুনের পর এই হত্যার পর আওয়ামী লীগ ও নিহতের পরিবার জামায়াতকে দায়ী করলেও পুলিশ দলীয় কোন্দলের বিষয়টিও মাথায় রেখে তদন্তে নেমেছে। এরই মধ্যে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি আহসান হাবীব মাসুদকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। সাদুল্যাপুরে ক্ষমতাসীন দলের তিন নেতা নিখোঁজের সঙ্গে সংসদ সদস্য হত্যার কোনো সম্পৃক্ততা আছে কি না-এ নিয়েও কথা উঠেছে। মনোয়ারুল হাসান জিম ম-লের বাবা গোলাম মোস্তফা ডিপটি বলেন, তার ছেলে গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় সাদুল্লাপুর উপজেলা শহরের কৃষি ব্যাংক মোড় থেকে মোটরসাইকেলে নলডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান তরিকুল ইসলাম নয়নের বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। পথে লালবাজার এলাকা থেকে তিনি ছাত্রলীগ নেতা সাদেকুল ইসলাম সাদেককে তার মোটরসাইকেলে তুলে নেন। এরপর থেকে তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। গোলার মোস্তফা বলেন, বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নেয়া হচ্ছে, কিন্তু তাদের কোনো খোঁজ মিলছে না। জিম মন্ডলের পরিবারের লোকজনের ধারণা, তাদের তুলে নেয়া সাদা পোশাকধারী কোনো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হতে পারেন। নিখোঁজ মাইদুল ইসলাম প্রিন্সের ভাই নলডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম নয়ন জানান, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে কয়েক ব্যক্তি নলডাঙ্গা রেলগেট এলাকা থেকে তার মোটরসাইকেলসহ প্রিন্সকে তুলে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে র‌্যাব, পুলিশ, ডিবি পুলিশের সঙ্গে কথা হয়েছে, তারাও তার সম্পর্কে কোনো তথ্য দিতে পারেনি। যুবদলের নেতা শফিউল ইসলাম শাপলার বাবা আমিনুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টায় নলডাঙ্গা কাচারী বাজার এলাকায় তার ছেলে অবস্থান করছিলেন। এ সময় হঠাৎ করে কয়েকজন তাকে আইডি কার্ড দেখিয়ে একটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দেন। পরে তাকে তুলে নিয়ে যায় তারা। সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার খান বিপ্লব জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা দুঃখজনক। বিষয়টি পুলিশ সুপারসহ অন্য কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। তারা সব জায়গায় খোঁজ-খবর নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফরহাদ ইমরুল কায়েস বলেন, চারজন নেতাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি তিনি জেনেছেন। তিনজন অভিভাবক তাদের ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, পুলিশের কেউ তাদের তুলে নিয়ে যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।




 


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন। ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
সম্পাদক কর্তৃক ১৪৬ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা (৪র্থ তলা), ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত ও ডেসটিনি প্রিন্টিং প্রেস, ১৩/২/এ কেএম দাস লেন, গোপীবাগ, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
যোগাযোগ : আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর, ঢাকা-১০০০।
ফোন : ৭১৭৪৭০২, ৯৫৫৯৯৪৯, ৯৫৫৯০০৬, বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০, email: ddaddtoday@gmail.com ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com, e-mail:destinyout@yahoo.com, dainikdestiny@gmail.com
Developed & Maintenance by i2soft