রবিবার, মে ২৭, ২০১৮ | ১২, জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫
 / শেয়ার বাজার ও বাণিজ্য / গ্রাহক প্রতি ১৫ টির বেশি সিম রাখা যাবেনা: বিটিআরসি
ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Tuesday, 5 December, 2017 at 5:27 PM, Update: 05.12.2017 5:30:04 PM, Count : 445
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

একজন ব্যক্তি নিজের নামে ১৫টির বেশি সিম রাখতে পারবেন না। কারো কাছে ১৫টির বেশি সিম থাকলে আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে তার নিষ্ক্রিয় করতে বলার পাশাপাশি কেউ সিম নিষ্ক্রিয় না করলে তা বিটিআরসি বন্ধ করে দেবে বলেও জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

মঙ্গলবার দেশের সব মোবাইল ফোন অপারেটরকে পাঠানো এক নির্দেশনায় বিটিআরসি বলেছে, গ্রাহক ওই সময়ের মধ্যে স্বেচ্ছায় অতিরিক্তি সিম নিষ্ক্রিয় না করলে কমিশন পরে নিজেদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট অপারেটরের মাধ্যমে সেগুলোর নিবন্ধন বাতিল ও বন্ধ করে দেবে। সেক্ষেত্রে গ্রাহকের প্রয়োজনীয় সিমও বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে ওই নোটিসে।

২০১৬ সালের ২০ জুন গ্রাহক প্রতি সর্বোচ্চ ২০টি সিম রাখা যাবে বলে বিটিআরসি সীমা বেঁধে দিয়েছিল। তা আরও কমিয়ে গতবছরের অগাস্টে সর্বোচ্চ পাঁচটি সিম রাখার অনুমতি দেওয়া হয়।

এরপর ওই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে গত ২৪ অক্টোবর গ্রাহক প্রতি সর্বোচ্চ ১৫টি সিম বা রিম রাখার সুযোগ দেয় বিটিআরসি। মঙ্গলবার পাঠানো নির্দেশনায় বিটিআরসি বলেছে, গ্রাহকদের কাছে ১৫টির বেশি সিম থাকলে তা অবৈধ। সুতরাং তাকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট অপারেটরের নিজস্ব কাস্টমার কেয়ারে উপস্থিত হয়ে অতিরিক্ত সিম নিষ্ক্রিয় করে ফেলতে হবে।

গ্রাহক নিজে থেকে বন্ধ না করলে বিটিআরসি কোন সিমগুলো অতিরিক্ত হিসেবে বিবেচনা করে নিষ্ক্রিয় করার উদ্যোগ নেবে, তা ওই নির্দেশনায় জানানো হয়নি।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162