সোমবার, জুলাই ১৬, ২০১৮ | ৩১, আষাঢ়, ১৪২৫
 / প্রথম পাতা / হুমকির মুখে ভারতের গণতন্ত্র : ৪ বিচারপতি
ডেসটিনি ডেস্ক  
Published : Saturday, 13 January, 2018 at 9:43 PM, Count : 68
হুমকির মুখে ভারতের গণতন্ত্র : ৪ বিচারপতি

হুমকির মুখে ভারতের গণতন্ত্র : ৪ বিচারপতি

ভারতীয় প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন ৪ বিচারপতি। বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশটির আইনমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। গতকাল দিল্লির নিজ কার্যালয়ে এ বৈঠক করেন মোদি। এর আগে সকালে সংবাদ সম্মেলন ডেকে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ করেন ভারতের সুপ্রিম কোর্টের চার বিচারপতি। রাজধানী দিল্লিতে বিচারপতি জে চেলামেশ্বরের বাড়িতে ডাকা ওই সংবাদ সম্মেলনে বিচারপতি কুরিয়ানা জোসেফ, বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এবং বিচারপতি মদন লোকুর উপস্থিত ছিলেন। গণতন্ত্রের অস্তিত্ব সঙ্কটের আশঙ্কা প্রকাশ করে বিচারপতি জে চেলামেশ্বর বলেন, ‘এখন রাষ্ট্রই সিদ্ধান্ত নেবে প্রধান বিচারপতিকে ইমপিচ করা উচিত কি না।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় বিচার বিভাগে দুর্নীতি ও নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে চাপা অসন্তোষ চলছিল। এবার সুপ্রিম কোর্টের প্রশাসনিক অনিয়ম নিয়ে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের দিকে অভিযোগ তুললেন চার বিচারপতি। বিচারপতিরা দাবি করেন, দেশের শীর্ষ আদালতের প্রশাসনিক ক্ষেত্রে নানা অনিয়ম চলছে। বিষয়টি নিয়ে প্রধান বিচারপতিকে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তা বুঝতে চাননি তিনি।
বিচারপতিরা বলেছেন, বিচারব্যবস্থা যেভাবে পক্ষপাত দোষে দুষ্ট হয়ে পড়ছে তাতে দেশের গণতন্ত্র আজ হুমকির মুখে। তাঁরা বলেন, সম্প্রতি মেডিকেল কলেজে ভর্তি-সংক্রান্ত দুর্নীতির মামলার শুনানি নিয়ে বিচারপতি চেলামেশ্বরের সঙ্গে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বিতর্ক সৃষ্টি হয়। এই মামলায় বিচার বিভাগের বিরুদ্ধেও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ ওঠে
এসব অভিযোগ মাথায় নিয়ে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ করা উচিত কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে ওই চার বিচারপতির একজন বলেন, তাঁর (প্রধান বিচারপতি) ইমপিচমেন্টের বিষয়ে এখন রাষ্ট্রকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে বিচারপতি চেলামেশ্বর বলেন, এসব বিষয় জানিয়ে আগে প্রধান বিচারপতির কাছে চিঠি দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু কোনো জবাব আসেনি। অগতকাল তাঁরা আবার প্রধান বিচারপতির সঙ্গে দেখা করে আলোচনা করেছেন। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ডেকে অভিযোগ তোলার কোনো নজির নেই। এ বিষয়ে বিচারপতি চেলামেশ্বর বলেন, এটা আসলেই নজিরবিহীন ঘটনা। তবে এটা করা ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় ছিল না। বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, আমাদের সঙ্গে প্রকৃত অর্থে কী ঘটছে তা জাতিকে জানাতেই এখানে আসা।
এদিকে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে এভাবে অভিযোগ তোলা ভারতের বিচার বিভাগের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা বলে উল্লেখ করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।

    





দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162