বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮
 / শেষ পাতা / নাসার দুর্বিনে নক্ষত্র-জন্মের শুলুক-সন্ধান
ডেসটিনি ডেস্ক
Published : Saturday, 13 January, 2018 at 10:52 PM, Count : 25
নাসার দুর্বিনে নক্ষত্র-জন্মের শুলুক-সন্ধান

নাসার দুর্বিনে নক্ষত্র-জন্মের শুলুক-সন্ধান

আমাদের ছায়াপথে সূর্যের মতো অসংখ্য নক্ষত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে। ধারণা করা হয়, সেগুলো জন্ম নিয়েছে ঘনীভূত মহাজাগতিক গ্যাস আর ধূলিকণার সমবায়ে। কিন্তু এর পুরো প্রক্রিয়াটির পরিপূর্ণ শুলুক-সন্ধানে মহাকাশবিজ্ঞানীরা ক্রমাগত অন্বেষণ চালিয়ে যাচ্ছেন। উড়ন্ত এই দুর্বিনে নক্ষত্রদের অনেক ভেতরকার এমন সব ছবি পাওয়া গেছে, যা আগে আর কখনোই সাধারণ দুরবিনে ধরা পড়েনি। এসব ছবি নক্ষত্রের জন্ম রহরস্যের কিনারা করতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। দুর্বিনটি গতানুগতিক দুর্বিনের মতো কোনো একটি জায়গায় স্থির নয়, বরং এটি সদা চলমান ও উড়ন্ত। কেননা এটি স্থাপন করা হয়েছে একটি উড়ন্ত জাম্বো জেটে। সোফিয়া অবজারভেটরিতে গবেষণারত  মহাকাশবিজ্ঞানীদের একজন হচ্ছেন ফাবিও সান্তোস। ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের নরর্থওয়েস্টার্ন বিশ্বাবিদ্যালয়ের এই অধ্যাপকে মতে, আধুনিক জ্যোতির্বিদ্যার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জগুলোর একটি হচ্ছে, গ্রহ ও নক্ষত্রগুলো কীভাবে জন্ম নিল বা গঠিত হলো তা বুঝতে পারা। আমরা জানি যে, মিল্কিওয়ে বা আকাশগঙ্গায় যে অপরিমেয় ধূলিকণা ও আণব গ্যাস অতিকায় মেঘমালা রূপে বিরাজমান, তাই এক সময় ঘনীভূত হতে হতে গ্রহ ও নক্ষত্রম-ল হিসেবে আবির্ভূত হয়। এ ব্যাপারে বেসিক ধারণাটি হচ্ছে, এই অতিকায় গ্যাসীয় মেঘমালা নিজের ভর ও অভিকর্ষের কারণে সংকুচিত ও ঘনীভূত হতে থাকে। এক পর্যায়ে সেসব গ্যাসীয় পি-ের গুচ্ছ বা ঝাড়ের আকার নেয়।









দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162