এই মাত্র পাওয়া : ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিককে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘একুশে পদক’ প্রদান করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
 / এক্সক্লুসিভ / এ জীবন পুলিশের - ট্রাফিক ইন্সপেক্টর রফিক
চট্টগ্রাম অফিস ,ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Friday, 9 February, 2018 at 11:09 PM, Update: 09.02.2018 11:16:37 PM, Count : 170
এ জীবন পুলিশের - ট্রাফিক ইন্সপেক্টর রফিক

এ জীবন পুলিশের - ট্রাফিক ইন্সপেক্টর রফিক

রফিক আহমেদ মজুমদার চট্টগ্রামের হাটহাজারিতে ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত। ২০১৬ সালে সার্জেন্ট থেকে পদন্নোতি পেয়ে ইন্সপেক্টর হয়ে দায়িত্ব নেন হাটহাজারী ট্রাফিক বিভাগের। এ থানা এলাকায় মাত্র ১১ জন ট্রাফিক সদস্য নিয়ে দায়িত্ব পালন করছে সুনামের সাথে। গত মাসের শেষ হওয়া ইজতেমায় ধর্মপ্রাণ মুসলিদের সহজে যাতায়াত নিশ্চিত করেন তিনি। 

তাছাড়া গত মাসে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি এবং চলতি মাসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ ভিআইপিদের যাতায়াতে তেমন কোন যানজট ও সমস্যা না হওয়ায় পেয়েছেন প্রশংসা।  রফিক বলেন, পুলিশের চাকুরীর প্রথম দিন থেকেই মনে মনে শপথ নিয়েছি দেশ সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করব। দেশ ও মানুষের কল্যানে সব সময় নিজেকে নিয়োজিত রাখব। আর এই ব্রত নিয়ে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগে আমার চাকুরী নেওয়া। ১৯৯৯ সাল থেকে পুলিশে চাকুরীর মাধ্যমে দেশের সেবা করছি আগামী মৃত্যু পর্যন্ত এই সেবা অব্যাহত রাখব। রফিক ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া থানাধীন পূর্বে শিলুয়া গ্রামের বীর প্রতিক খেতাব প্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম তোফায়েল আহমেদ ও শরিফা খাতুনের পুত্র।

সীতাকুন্ড  থানাধীন ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়িতে ইনচার্জ এর দায়িত্বে থাকা অবস্থায় সার্জেন্ট থেকে পদোন্নতি পেয়ে ইন্সপেক্টর হন এই আদর্শবান পুলিশ কর্মকর্তা। ইন্সপেক্টর হয়েও দায়িত্ব গ্রহন করেন হাটহাজারী ট্রাফিক বিভাগে। ইন্সপেক্টর রফিকের দায়িত্ব গ্রহন করার পর থেকে অনেকটা যানজট মুক্ত এলাকার স্বাদ গ্রহন করছে হাটহাজারীবাসী। দীর্ঘ চাকুরী জীবনে বিভিন্ন জেলায় কর্মরত থেকে দেশ ও জনগনের সেবা করেছেন।   তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ, চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ, লক্ষীপুর জেলা, টাঙ্গাইল জেলা, হাইওয়ে পূর্ব, হাইওয়ে পুলিশ বর্তমানে চট্টগ্রাম জেলায় হাটহাজারী কর্মরত আছেন।

দেশ ও জাতীর সেবা করার শপত নেওয়া এই কর্মকর্তার সরকারের কাছে দাবী তাদের বেতন ভাতা এবং ঝুকিভাতা বৃদ্ধি করা ওভার টাইম দেওয়া এবং তাদের সন্তানদের ভালো স্কুলে লেখাপড়ার সুযোগ করে দেওয়া। তিনি বলেন  ট্রাফিক বিভাগের সদস্যদের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেক কষ্ট সহ্য করতে হয়। রোদে শুকিয়ে বৃষ্টিতে ভিজে দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করেন এই ট্রাফিক সদস্যরা। তাই তাদের পরিশ্রমের কথা চিন্তা করে সরকার তাদেরকে বাড়তি সুযোগ দেওয়া প্রয়োজন।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162