রবিবার, এপ্রিল ২২, ২০১৮ | ৮, বৈশাখ, ১৪২৫
 / অর্থ ও বাণিজ্য / মোটরসাইকেল উৎপাদনকারীদের পাশে সরকার
ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Sunday, 8 April, 2018 at 4:32 AM, Count : 271
মোটরসাইকেল উৎপাদনকারীদের পাশে সরকার

মোটরসাইকেল উৎপাদনকারীদের পাশে সরকার

জাপান ভিত্তিক মোটরসাইকেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হোন্ডা মোটর কর্পোরেশন সম্প্রতি বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার ঘোষণা দিয়েছে।

গতবছর দেয়া বাংলাদেশ মোটরসাইকেল অ্যাসেম্বলার অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএএমএ) তথ্য বলছে, এ বাজারের ৮৭ শতাংশই এখনো বিদেশি কোম্পানিগুলোর দখলে। আর বাকি মাত্র ১৩ শতাংশ বাজার রয়েছে দেশে উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর নিয়ন্ত্রণে।

বাংলাদেশে গড়ে প্রতি বছর প্রায় তিন লাখ মোটরসাইকেল বিপণন করা হচ্ছে। গেলো পাঁচ বছরে মোটরসাইকেলের বাজার সম্প্রসারণ হয়েছে বার্ষিক ১৫-২০ শতাংশ হারে। অর্থনৈতিক কার্যক্রমে সম্পৃক্ততার সুযোগ ও চলিষ্ণুতা বৃদ্ধি, তরুণদের আগ্রহ, রেমিট্যান্সের প্রভাব, সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার সুবাদে মোটরসাইকেলের বার্ষিক বাজার বেড়ে ৫ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে।

এ অবস্থায় সরকার চায়- আমদানি নয়, দেশেই এ শিল্পের উৎপাদন বাড়ুক। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলছেন, গত কয়েক বছরে দেশে বেশ কয়েকটি গাড়ি সংযোজন শিল্প গড়ে উঠেছে। অনেক প্রতিষ্ঠানই এখন মোটরসাইকেল সংযোজন করছে। মোটরসাইকেল সংযোজনে পাঁচ বছরের বিশেষ অব্যাহতির সুযোগ দেয়া হচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করা।

গেলো সপ্তাহে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রাজস্ব ভবনের সভাকক্ষে বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস (একবার ব্যবহৃত) ইমপোর্টার্স অ্যান্ড ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন (বারভিডা) নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রাকবাজেট আলোচনায় বসে এনবিআর।

ওই সভায় রি-কন্ডিশন কার আমদানিতে শুল্ক কমানোসহ সংগঠনের পক্ষ থেকে বেশ কয়েকটি দাবি তুলে ধরা হয়। ওই সময় এনবিআর চেয়ারম্যান সবক্ষেত্রে কর হ্রাসের চিন্তা থেকে ব্যবসায়ীদের বেরিয়ে আসার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, সব ক্ষেত্রে ট্যাক্স রিডাকশন (কর হ্রাস) আশা করবেন না। প্রতি বছর বাজেটের আকার বাড়ছে। গতবারের চেয়ে এবারের বাজেটের আকার কমপক্ষে ৫০ হাজার কোটি টাকা বেশি হবে। সেজন্য রাজস্ব আয় ৩০-৪০ হাজার কোটি টাকা বৃদ্ধি করতে হবে। তবে রাজস্ব আয়ের উৎস সীমিত। তাই ট্যাক্স রিডাকশন দেওয়ার আগে ভাবতে হবে।

রিকন্ডিশন্ড হাইব্রিড গাড়ি আমদানিতে সিলিন্ডার ক্যাপাসিটি ১৬০০ সিসি পর্যন্ত ২০ শতাংশ শুল্কের স্তরটি উঠিয়ে শূন্য থেকে ১৮০০ সিসি পর্যন্ত ১৫ শতাংশ শুল্ক করার দাবি জানায় বারভিডা।

এছাড়া সিলিন্ডার ক্যাপাসিটি ১৬০১ থেকে ২০০০ সিসি পর্যন্ত ৪৫ শতাংশ শুল্ক স্তরটি উঠিয়ে ১৮০১ থেকে ২৫০০ সিসি পর্যন্ত ৩০ শতাংশ শুল্ক করার দাবি জানানো হয়।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162