বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮ | ২, কার্তিক, ১৪২৫
 / শেয়ার বাজার ও বাণিজ্য / ঋণ খেলাপি কমিয়ে এনে ব্যাংকিং খাতে নজরদারি বৃদ্ধি ও অগ্রিম আয়কর প্রথা প্রত্যাহারের প্রস্তাবনা
জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের পরামর্শক কমিটির ৩৯ তম সভায় এফবিসিসিআই
মাসুদ রানা, ঢাকা, ডেসটিনি অনলাইন :
Published : Thursday, 12 April, 2018 at 7:43 PM, Count : 208
ঋণ খেলাপি কমিয়ে এনে ব্যাংকিং খাতে নজরদারি বৃদ্ধি ও অগ্রিম আয়কর প্রথা প্রত্যাহারের প্রস্তাবনা

ঋণ খেলাপি কমিয়ে এনে ব্যাংকিং খাতে নজরদারি বৃদ্ধি ও অগ্রিম আয়কর প্রথা প্রত্যাহারের প্রস্তাবনা

ঋণ খেলাপি কমিয়ে আনার জন্য দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ,  রাজনৈতিক বিবেচনায় ঋণ প্রদান বন্ধ করার বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার লক্ষ্যে সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে এফবিসিসিআই।

আমদানি শিল্পের মৌলিক কাঁচামালসহ অন্যান্য আমদানি পণ্যের উপর ৫% অগ্রিম আয়কর আদায় করা হয়। এটা আয়কর আইনের মূলনীতির পরিপন্থী। ব্যবসা-বান্ধব আয় কর আইন প্রণয়ন করতে হলে এ ধরনের বিধান আইন থাকা উচিত নয়। বিশ্ববাজারে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে টিকে থাকার উদ্দেশ্যে ব্যবসা খরচ কমানোর জন্য আমদানি স্তরে শিল্পের মৌলিক কাঁচামালসহ অন্যান্য আমদানির ক্ষেত্রে অগ্রিম আয়কর প্রথা প্রত্যাহারের প্রস্তাবও জানায় এফবিসিসিআই।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এফবিসিসিআই এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এই সব প্রস্তাবনা গুলো জানায় এফবিসিসিআইয়ের চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।


এফবিসিসিআই চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, দেশের ব্যাংকিং খাতের বর্তমান অবস্থা থেকে উত্তরণ হওয়া আমাদের জন্য অত্যন্ত জরুরি। আমানত এবং ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের কঠোর নজরদারি বৃদ্ধি এবং নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ব্যাংকিং খাতে শৃঙ্খলা নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের ভূমিকা আরো জোরালো হওয়া প্রয়োজন।
এছারাও এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন স্বাগত বক্তব্যে উল্লখ্য করেন, এডিপি'র আকার, অর্থসংস্থান, সময়োচিত পরিকল্পনা প্রণয়ন, যোগ্য ও দক্ষ প্রকল্প পরিচালক নিয়োগ সহ সার্বিক প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা। কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ২০২০ সাল নাগাদ ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের ক্ষেত্রে লক্ষ্যে জিডিপি'র ৩৪.৪ শতাংশ বিনিয়োগ নিশ্চিতকরণের জন্য সরকার এবং বেসরকারি উভয় খাতে বিনিয়োগ ব্যাপকভাবে বাড়াতে হবে। 

অর্থনীতির আকার বৃদ্ধির সাথে সাথে সেই অনুপাতে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সরবরাহ বৃদ্ধি পায়নি উল্লেখ্য করে বলা হয়, এ কারণে শিল্পের উৎপাদনশীলতা বাধাগ্রস্ত হয় সুতরাং শিল্পায়নের জন্য নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা জরুরি। জাতীয় প্রবৃদ্ধিকে আরো সুসংহত করতে চলমান অর্থনৈতিক কার্যক্রমের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ সেবা প্রদানের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম বন্দর সকল বন্দরসমূহ ও স্থলবন্দর সময়ের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। কৃষি খাতের ভর্তুকি যাতে সরাসরি ও সঠিক সময়ে কৃষকের কাছে পৌঁছে সে বিষয়ে মনিটরিং জোরদার করতে হবে বলেও উল্লেখ্য করা হয়। এবং দরিদ্র কৃষকদের ঝুঁকি কমিয়ে আনার মাধ্যমে অধিক ফসল উৎপাদনে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে কৃষি বীমা প্রবর্তনের উদ্যোগ গ্রহণ করতে করা যেতে পারে বলে মতদেন।

উত্তরাঞ্চলসহ প্রত্যন্ত ও অন্য অঞ্চলে বিনিয়োগ ও শিল্পায়ন উৎসাহিত করতে বিশেষ এরিয়াতে সুযোগ-সুবিধা প্রদানের পাশাপাশি শিল্প প্লটের অপর্যাপ্ততার দূর করার জন্য বিসিক সহ অন্যান্য রাষ্ট্রীয় শিল্প প্রতিষ্ঠানের অব্যাহত জমি ব্যবহারের বিষয়ে দিকনির্দেশনা প্রদানের অনুরোধ করে কিছু দাবি পেশ করেন।এছাড়াও এফবিসিসিআইসহ বাণিজ্য সংগঠন গুলির সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সহায়তা প্রদান সম্পর্কে এফবিসিসিআই থেকে প্রস্তাবনা করা হয় বলা হয়, সরকার ও বেসরকারি উভয় খাত থেকেই সারা দেশে বিক্ষিপ্ত ভাবে ক্যাপাসিটি বিল্ডিং প্রোগ্রাম বা ট্রেনিং প্রোগ্রাম গ্রহণ করা হয়ে থাকে। মেধাভিত্তিক এবং চাহিদার ওপর ভিত্তি করে জনসম্পদ সৃষ্টি করার জন্য এফবিসিসিআই ট্রেনিং প্রোগ্রাম সহ বিভিন্ন ধরনের আন্তর্জাতিক মানের ক্যাপাসিটি বিল্ডিং প্রোগ্রাম হাতে নিচ্ছে এ সকল কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানান।


আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। সভায় সভাপতিত্ব করেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন ভূইঞা। অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন এফবিসিসিআই সভাপতি মোঃ সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তাবৃন্দ, এফবিসিসিআইয়ের প্রাক্তন সভাপতিবৃন্দ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ।


দৈনিক ডেসটিনি’র অনলাইনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০০৬-২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162